৩৫ বছরের সংসার ছেড়ে দেবরকে বিয়ে করায় জবাই করে হত্যা, সাবেক স্বামী আটক!

লক্ষ্মীপুরে শহরবানু নামের এক নারীকে জবাই করে হত্যা করেছে খোকন আলী শেখ নামে তার সাবেক স্বামী। এ ঘটনায় অভিযুক্ত খোকনকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছেন স্থানীয় এলাকাবাসী। নিহত শহরবানু পঞ্চগড় জেলার দেবীগঞ্জ গ্রামের ফজর আলীর মেয়ে।

 

রোববার (১৭ এপ্রিল) বেলা ১১টার দিকে পৌর শহরের স্টেডিয়াম এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ৩৫ বছরের সংসার ছেড়ে দেবরের সঙ্গে পালিয়ে শহরবানু নতুন সংসার শুরু করায় ক্ষুব্ধ হয়ে এ হত্যাকাণ্ড ঘটানো হয়েছে বলে জানায় পুলিশ।

 

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী জানায়, প্রায় ৩৫ বছর আগে বগুড়ার বাসিন্দা মেহের আলীর ছেলে খোকন শেখ ও পঞ্চগড় জেলার দেবীগঞ্জ গ্রামের বাসিন্দা ফজর আলীর মেয়ে শহরবানুর বিয়ে হয়। খোকন ঢাকার আব্দুল্লাহপুর এলাকায় কাঁচা মালের (সবজি) ব্যবসায়ী হিসেবে স্ত্রীকে নিয়ে ওই এলাকায় বাসা ভাড়া নিয়ে থাকতেন। তাদের সংসারে ৩ সন্তানও রয়েছে। এ সুবাদে ভাইয়ের বাসায় আসা যাওয়া করতেন তার ছোট ভাই ফকির আলী শেখ। এতে করে দেবর ভাবির মধ্যে সখ্যতা গড়ে উঠে।

 

এক পর্যায়ে তারা দু’জন পালিয়ে এসে লক্ষ্মীপুর শহরের সিরাজ মোল্লার বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস করে আসছিলেন। সাবেক স্বামীকে ডিভোর্স দিয়ে নতুন সংসার শুরু করেন শহরবানু। এমন প্রেক্ষাপটে তার সাবেক স্বামী খোঁজ নিয়ে লক্ষ্মীপুরে আসেন। এক পর্যায়ে ছোট ভাইয়ের কর্মে যাওয়ার ফাঁকে বাসায় ঢুকে শহর বানুকে ফিরিয়ে নেয়ার প্রস্তাব দেন খোকন। এতে রাজি না হওয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে শহরবানুকে জবাই করে হত্যা করে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে খোকন। এ সময় স্থানীয় এলাকাবাসী তাকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন পুলিশ সুপার।

 

পুলিশ সুপার ড. এ এইচ এম কামরুজ্জামান গণমাধ্যমকে জানান, ভাবিকে বাগিয়ে এনে দেবর বিয়ে করে নতুন সংসার শুরু করে। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে সাবেক

স্বামী তার স্ত্রীকে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করে হত্যা করে। পুলিশ হত্যাকারীকে আটক করেছে। নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

x