গার্মেন্টস পদে যোগ্যতা অনুযায়ী চাকরির বেতন 2023

গার্মেন্টস পদে যোগ্যতা অনুযায়ী চাকরির বেতন 2023. বাংলাদেশী শিল্পীর অন্যতম একটি মাধ্যম হচ্ছে গার্মেন্টস। বাংলাদেশের বিপুল সংখ্যক মানুষ গার্মেন্টসে কর্মী হিসেবে কাজ করে।এবং জীবিকা নির্বাহ করে।বাংলাদেশের শিল্পের অন্যতম মাধ্যম হচ্ছে গার্মেন্টস আর এই গার্মেন্টসে পদ ও যোগ্যতার ভিত্তিতে বেতন নির্ধারণ করা হয়েছে। বিভিন্ন পদ ভেদে বেতন‌ভাতার ধরনও ভিন্ন হয়ে থাকে।

গার্মেন্টস পদে যোগ্যতা অনুযায়ী চাকরির বেতন

দিন দিন আমাদের দেশে বেকারত্বের পরিমাণ বেড়েই চলেছে। আজকে আমাদের আলোচনার বিষয় হচ্ছে গার্মেন্টস চাকরির পথ যোগ্যতা ও বেতন নিয়ে। অনেকেই পড়াশোনা শেষ করে চাকরি খুঁজছেন কিন্তু চাকরি পাচ্ছেন না বর্তমানে তাই বেশি শিক্ষিত তরুণ তরুণী  বেছে নিচ্ছেন বেসরকারি চাকরি। এর মধ্যে গার্মেন্টসের চাকরির বাজার সর্বাপেক্ষা বৃহৎ।

গার্মেন্টস কি

প্রকৃতপক্ষে গার্মেন্টস হল মানুষের শরীরে ব্যবহার করার লক্ষ্যে এমন ধরনের কোন পোশাক বা কাপড় যা ফেব্রিক্স বা অন্য কোন টেক্সটাইল ম্যাটেরিয়ালস থেকে উৎপাদন করা হয়। বাংলাদেশে অন্যান্য শিল্পের মধ্য গার্মেন্টস শিল্প বা পোশাক শিল্প অন্যতম একটি। বেকারত্বের হার দূরীকরণে এই গার্মেন্টস শিল্পে বহু মানুষ বিভিন্ন পদে কর্মী হিসেবে কাজ করে দেশের অর্থনীতিতে অবদান রাখছে।

গার্মেন্টসে কাজ কি

গার্মেন্টসে বিভিন্ন সেকশনে বিভিন্ন ধরনের কাজ করানো হয়। গার্মেন্টসে কাজগুলোর মধ্যে কিছু উল্লেখযোগ্য কাজ হলো,অপারেটরের কাজ, সুপারভাইজার এর বিভিন্ন কাজ, কাটিং সহকারি কাজ, কোয়ালিটি ইন্সপেক্টর এর কাজ, কোয়ালিটি কন্ট্রোলারের কাজ, ইচ্ছা রই স্পেশাল ম্যান এর কাজ রয়েছে মেকানিক্স এর কাজ। ফিনিশিং সুপারভাইজার বা ইনচার্জ এর কাজ। প্রোডাকশন ম্যানেজারের কাজ। ম্যানেজার বা জি এম এর কাজ।

গার্মেন্টস পদে যোগ্যতা অনুযায়ী চাকরির বেতন

গার্মেন্টসে চাকরির কিছু সুবিধা সমূহ

১। গার্মেন্টস চাকরিতে জয়েন করা সহজ।

২। গার্মেন্টসে চাকরি পেতে কোন প্রকার ঘুষ দিতে হয় না।

৩। গার্মেন্টস চাকরিতে পারফরম্যান্স অনুযায়ী দ্রুত পদোন্নতি ঘটে।

৪। গার্মেন্টস চাকরিতে বেশিরভাগ পদে অভিজ্ঞতার প্রয়োজন হয় না।

৫। গার্মেন্টস চাকরিতে ওভারটাইমের সুযোগ থাকে বেশি টাকা ইনকাম করার সুযোগ আছে।

৬। গার্মেন্টস চাকরিতে শিক্ষাগত যোগ্যতা খুব একটা মেজর বিষয় নয়।

৭। সরকারি চাকরির মত গার্মেন্ট চাকরিতে উৎসব ভাতা রয়েছে।

৮। কোন কোন গার্মেন্টসের মধ্যাহ্নভোজের ব্যবস্থা রয়েছে পরিবহন সুবিধা রয়েছে।

৯। গার্মেন্টস চাকরিতে হাসিনা বা উপস্থিত বোনাস রয়েছে তা বাড়তি বেতনের নিশ্চয়তা দেয়।

১০। গার্মেন্টসে ফায়ার ড্রিল সহকর্মীদের বিভিন্ন নিরাপত্তা প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়।

গার্মেন্টসে চাকরিতে বিভিন্ন পদে বেতন

সব চাকরিতেই পদ অনুযায়ী বেতন দেওয়া হয় গার্মেন্টসে ও তার ভিন্ন নয়। বিভিন্ন পদ ভেদে তার বেতন ভাতার ভিন্নতা রয়েছে।

Read More: PKSF চাকরির বিজ্ঞপ্তি ২০২২- pksf.org.bd আবেদন করুন

অপারেটর

গার্মেন্টস এর উৎপাদন নির্ভর করে মূলত অপারেটরের উপর। অপারেটরগণ বিভিন্ন প্রকার সেলাই মেশিন চালানোর ক্ষেত্রে দক্ষ হয়ে থাকে। অপারেটর হতে হলে অভিজ্ঞতার প্রয়োজন আছে। তাই অপারেটর হিসেবে জয়েন করতে পূর্ব অভিজ্ঞতা বা ট্রেনিংয়ের প্রয়োজন হয়।২০২১ সালের হিসাব অনুযায়ী একজন অপারেটরের বেতন ৮৫০০ থেকে সর্বোচ্চ ১৫ হাজার টাকা পর্যন্ত হয়ে থাকে। ওভারটাইম করে এর থেকে আরও বেশি টাকা ইনকামের সুযোগ আছে।

হেলপার

হেলপারের কোন অভিজ্ঞতা নিয়ে চাকরির প্রয়োজন হয় না হেলপারের কাজ মূলত অপারেটরকে সাহায্য করা। হেল্পার হল যারা নতুন জয়েন করে তাদেরকেই বোঝানো হয় এজন্য হেলপারের বেতন কম হয়ে থাকে।তাদের বেতন ৮০০০ থেকে শুরু হয়ে থাকে।

সুপারভাইজার

সুপারভাইজার এর কাজ হলো সুপারভাইস করা।অপারেটর এবং হেলপারের কাজ দেখা শোনা করে থাকেন সুপারভাইজার। কাজের হিসাব নিকাশ রাখেন সুপারভাইজার ১৩ দিনে কিছু অপারেটর ও হেলপার কাজ করেন।বিভিন্ন ক্যাটাগরি সুপারভাইজারের পথ রয়েছে গার্মেন্টসে যেমন জুনিয়র বা সিনিয়র সুপারভাইজার সুইং সুপারভাইজার কাটিং সুপারভাইজার ফিনিশিং সুপারভাইজার। সুপারভাইজার এর বেতন ১২ হাজার থেকে ১৮ হাজার টাকা পর্যন্ত হয়ে থাকে।

লাইনচিপ্স

লাইন চিপসের অধীনে কয়েকটি লাইন কাজ করে তিনি সুপারভাইজার অপারেটর হেলপারগনের কাজ দেখাশোনা ও তাদারকি করেন। তার বেতন ২০ হাজার থেকে ২৪ হাজার টাকা পর্যন্ত।

ইনচার্জ

একটি ফ্লোরের সমস্ত দায়িত্ব নিযুক্ত থাকে ইনচার্জ।ইনচার্জের অধীনে ফ্লোর এর সবাই কাজ করে ইনচার্জ এর বেতন ২৫ থেকে ৩০ হাজার টাকা পর্যন্ত হয়ে থাকে।

মার্কারম্যান

মার্গার ম্যান এর কাজ কাগজে নকশার ছাপ তৈরি করা যা দিয়ে থান কাপড় বা বা লে পোশাক তৈরির মাপ অনুযায়ী কাটা হয়। মার্কার ম্যান এর বেতন এবং অপারেটরদের বেতন একই।

Read More: চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের চাকরির বিজ্ঞপ্তি ২০২২- jobs.cpa.gov.bd অনলাইনে আবেদন করুন

লে‌ ম্যান

ইনারা কাপড়ের রোল থেকে কাপড় বিছিয়ে তার ওপর নকশা রেখে কাপড় কাটার কাজ করে থাকেন লে ম্যান। এদেরকে অভিজ্ঞতা ছাড়াই নিয়োগ দেওয়া হয়। হেলপারের বেতন এবং এদের বেতন একই।

কাটার ম্যান

কাতার ম্যান এর কাজ হলো গার্মেন্টসে ইনার নকশার ওপরে মেশিন রেখে কাপড় কাটা হয়। এই কাজে অভিজ্ঞতার প্রয়োজন আছে ।কাটার ম্যান মূলত সিনিয়র অপারেটর ।তাই কাটার ম্যান এর বেতন সিনিয়র অপারেটরের বেতনের মত ১২ থেকে ১৪ হাজার টাকা হয়।

নাম্বার ম্যান

নাম্বার ম্যান এর কাজ হল নাম্বার করা। চাকরির ক্ষেত্রে এরা পূর্ব অভিজ্ঞতা সম্পন্ন না হলেও নিয়োগ দেওয়া হয়। আর এদের বেতন হেলপার এর চেয়ে একটু বেশি হয়।

বান্ডিল ম্যান

বান্ডিল ম্যান নাম্বার করে বডি বা কাপড় বান্ডেল করে সেলাইয়ের জন্য প্রস্তুত করে দেয় সাধারণত পূর্ব অভিজ্ঞতার না থাকলেও এরা চাকরিতে নিযুক্ত হতে পারে। এদের হেল্পারের সমপরিমাণ বেতন দেওয়া হয়।

ইনপুটম্যান

ইনারা বিভিন্ন কাজের হিসাব রাখেন অনেক সময় প্রয়োজনের সেলাইয়ের জন্য কাপড় ইনপুট করে দেয়।অনেক সময় অভিজ্ঞতা ছাড়াই এদের নিয়োগ দেওয়া হয় নিয়োগ দিয়ে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে কাজ দেওয়া হয়। ইনপুটম্যান এর বেতন অপারেটর বেতনের কাছাকাছি হয়।

আইরন ম্যান

আইরন ম্যান কাপড় আইরন বা ইস্ত্রী করেন।এদেরকে অভিজ্ঞতা ছাড়াই চাকরি প্রদান করা হয় ।আইরন ম্যান এর বেতন হেলপারের সমপরিমাণ বা একটু বেশি হয়ে থাকে।

সিজারম্যান

সিজার ম্যান বিভিন্ন ক্ষেত্রে সিজার করার কাজ করে থাকে ।অভিজ্ঞ লোক দ্বারা এই কাজ করানো হয়। সিজারম্যানের বেতন অপারেটরের সমপরিমাণ হয়।

কোয়ালিটি

কোয়ালিটিরা পোশাক বাঁপুরের কোয়ালিটি বা গুনাগুন পরীক্ষা নিরীক্ষা করে থাকেন অচল পোশাক চিহ্নিত করেন। শিক্ষিত লোকদের অভিজ্ঞতা না থাকলেও এই কাজে নিয়োগ দেওয়া হয়। এদের বেতন অপারেটরদের বেতনের সমপরিমাণ হয়।

কোয়ালিটি কন্ট্রোলার

কোয়ালিটি কন্ট্রোলাররা সুপারভাইজার এর মত দায়িত্ববান হয়। এদের কাজে পূর্ব অভিজ্ঞতার প্রয়োজন হয়। কোয়ালিটি দের বেতন সুপারভাইজারদের বেতনের অনুরূপ।

মেকানিং

মেকানিংগণ বিভিন্ন মেকানিং এর‌ দায়িত্ব পালন করেন। মেকানিং এর বেতন প্রায় সুপারভাইজার ‌এর বেতনের কাছাকাছি হয়।

উল্লেখ্য যে, অন্যান্য শিল্প খাতের তুলনায় পোশাক শিল্প দ্রুত বর্ধনশীল। জিটিভিতে এই খাতের অবদান তুলনামূলক বেশি।পোশাকশিল্প থেকে দেশের ৭৮ ভাগ রপ্তানি করা হয় অথচ পোশাক শিল্প খাতে বেতন সবচেয়ে কম দেশের উল্লেখযোগ্য দশটি শিল্প খাতের মধ্যে পোশাক শ্রমিকের মজুরি সবচেয়ে কম ২০১০ থেকে ১২ সালের মধ্যে গঠিত বিভিন্ন নূন্যতম মজুরি বোর্ডের ঘোষিত মজুরি কাঠামো অনুযায়ী বর্তমানে নির্মাণ শিল্প কাঠের কাজ করেন এমন মজুরি ৯ হাজার ৮৮২ টাকা।ট্যানারি শ্রমিকের সর্বনিম্ন মজুরির ৯৩০০ টাকা তেল মিলের শ্রমিকের মজুরি সর্বনিম্ন ৭ হাজার ৪২০ টাকা ব্যাক্তি মালিকানাধীন সড়ক পরিবহনে ৬৩০০ টাকা রে রোলিং মিলে ৬১০০ টাকা।

বাংলাদেশের জিডিপিতে সবচেয়ে বেশি অবদান রাখে কোন শিল্পখাত?

বাংলাদেশের জিডিপিতে তুলনামূলক সবচেয়ে বেশি অবদান রাখে পোশাক শিল্পখাত।

পোশাক শিল্প থেকে দেশের কত ভাগ রপ্তানি করা হয়?

দেশের পোশাকশিল্প থেকে ৭৮ ভাগ বিদেশে রপ্তানি করা হয়।

বাংলাদেশের গার্মেন্টস কর্মীদের মধ্য কাদের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি?

বাংলাদেশের গার্মেন্টস শ্রমিকদের মধ্য সবচেয়ে বেশি নারীদের সংখ্যা।

শেষ কথা-

বাংলাদেশ একটি নিম্ন আয়ের বেকারত্ব বহুল দেশ। এই বেকারত্ব এবং জিডিপিতে অবদানের ক্ষেত্রে পোশাক শিল্প একটি অন্যতম নাম। পোশাক শিল্পের মাধ্যমে অনেক পুরুষের পাশাপাশি নারীরা তাদের কর্মসংস্থান পেয়ে নিজেদের স্বাবলম্বী করে তুলতে পারছে।

গার্মেন্টস পদে যোগ্যতা অনুযায়ী চাকরির বেতন
গার্মেন্টস পদে যোগ্যতা অনুযায়ী চাকরির বেতন

আশা করছি আজকের এই গার্মেন্টস বিষয়ক কন্টেন্ট থেকে আপনারা অনেক কিছু জানতে পেরেছেন। এই বিষয়ে যদি আরো কারো কোন জিজ্ঞাসা থাকে তবে অবশ্যই আমাদের কমেন্ট করে জানাবেন। এছাড়াও যেকোনো বিষয়ে যে কোন তথ্য জানতে আমাদের কমেন্ট করবেন আমরা ‌যথাসাধ্য চেষ্টা করব সঠিক তথ্য দেওয়ার।

Google Search Tag:-

  • গার্মেন্টস পদে যোগ্যতা অনুযায়ী চাকরির বেতন
  • গার্মেন্টস ফ্যাক্টরিতে চাকরি 2022
  • গার্মেন্টস চাকরি বেতন ২০২২
  • গার্মেন্টস চাকরি বেতন 2023
  • কোয়ালিটি কন্ট্রোলার এর বেতন কত
  • গার্মেন্টস শ্রমিকদের বেতন বৃদ্ধি
  • গার্মেন্টস চাকরি কোয়ালিটি প্রশ্ন
  • কোয়ালিটি ইন্সপেক্টর বেতন ক
x